• ad-5

Rice Bran Oil বা চালের কুড়ার তেল

এই পোষ্টটি সংরক্ষণ করা অথবা পরে পড়ার জন্য নিচের Save to Facebook বাটনে ক্লিক করুন ।

সুন্দর ও সুস্থ্ জীবন আমাদের সবারই কাম্য। কিন্তু সুন্দর ও সুস্থ্ জীবন আমাদের লাইফ স্টাইল, খাদ্যাভাস ও পরিবেশের উপর ওতপ্রোতভাবে জড়িত। একবিংশ শতাব্দিতে চিকিৎসা বিজ্ঞান প্রমান করেছে যে সঠিক ও প্রয়োজনীয় ভারসাম্য মাত্রার পুষ্টি (Balanced Diet) গ্রহনের মাধ্যমে মানুষ দীর্ঘায়ু ও সুস্থ জীবন লাভ করতে পারে।

প্রাচীনকাল থেকেই মানুষ বিভিন্ন রকমের ভোজ্য তেল ব্যবহার করে আসছে। এসব তেলে ভাল ও মন্দ দুই ধরনেরই পুষ্টিগুণ আছে। পুষ্টি প্রযুক্তির বহুমাত্রিক উন্নয়নের মধ্যদিয়ে বিজ্ঞানীরা অনুসন্ধান করে আসছে এমন একটি ভোজ্যতেল যা ক্ষতিকারক কোলেস্টেরল (LDL কোলেস্টেরল) মুক্ত ও অ্যান্টি অক্সিডেন্ট (Anti Oxidant) সমৃদ্ধ যা মানুষের হৃদপিন্ড ও লিভারকে সুস্থ ও সঠিকভাবে কার্যকর রাখতে এবং শারীরিক রোগ প্রতিরোধ ব্যবস্থাকে (Immunity) সমৃদ্ধ করতে সক্ষম। Rice Bran Oil বা চালের কুড়ার তেল এমনই একটি ভোজ্য তেল।

আমেরিকান হার্ট এসোসিয়েশন (AHA) এবং বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (WHO) কর্তৃক নির্ধারিত স্বাস্থ্যসম্মত তেলের সর্বাপেক্ষা নিকটবর্তী মাত্রায় অবস্থান করছে রাইস ব্রান অয়েল। ইতিমধ্যে বিশ্ববাজারের তাইওয়ান, থাইল্যান্ড এবং কোরিয়াতে প্রধান ভোজ্যতেল হিসেবে এটি ব্যবহৃত হচ্ছে। আমেরিকা ইউরোপসহ অনেক উন্নত দেশের ভোক্তারা এই তেল ব্যবহার করছে। American Heart Association বিভিন্ন রকমের ভোজ্য তেলের তুলনামূলক গবেষণায় চালের কুড়ার তেলকে মানুষের প্রয়োজনীয় পুষ্টি ও শারীরিক রোগ প্রতিরোধ ব্যবস্থা শক্তিশালীকরনে সর্বোৎকৃষ্ঠ বলে আখ্যায়িত করেছে এবং হৃদপিন্ডের কার্যকারিতা ও হৃদরোগ প্রতিরোধে এর কার্যকারিতার জন্য এই তেলকে হার্ট ওয়েল হিসেবে আখ্যায়িত করেছে। সুস্থ সবল হৃদপিন্ড ও শারীরিক রোগ প্রতিরোধ ব্যবস্থা শক্তিশালী করনে এই তেল সকলের জন্য অপরিহার্য। বিশেষ করে চল্লিশার্ধো বয়স ও হৃদরোগে আক্রান্ত রোগীর জন্য এর কোন বিকল্প নেই।

Rice Bran Oil বা চালের কুড়ার তেল কি?:
ধানের তুষ ও চালের মধ্যের লালচে অংশকে কুঁড়া (Rice Bran) বলা হয়। ধান থেকে চাল তৈরি কালে শতকরা ৮ ভাগ কুঁড়া পাওয়া যায়। ধানের কুঁড়ায় শতকরা ১৪ থেকে ২০ ভাগ পর্যন্ত তেল থাকে। রাইস ব্রান থেকে বিশেষ প্রক্রিয়ায় সংগ্রহীত এবং বিশেষ প্রক্রিয়ায় পরিশোধিত ভোজ্য তেলই রাইস ব্রান অয়েল। আমাদের দেশে ধানের কুঁড়া থেকে ভোজ্যতেল উৎপাদনের বিপুল সম্ভাবনা রয়েছে।

প্রথম দৃষ্টিতে এই তেল দেখতে সরিষা তেলের রঙ থেকে কিছুটা কালচে রঙ। অন্য যেকোনো তেল থেকে হালকা, তেল চিটচিটে নয়(Non sticky), সদ্য তাঁজা চালের মত মিষ্টি সুবাস। উৎপাদিত তেলের রঙ উজ্জ্বল করার জন্য কিংবা তেলের ন্যাচারাল ফ্লেভার রক্ষার জন্য রাসায়নিক কোনো কিছু ব্যাবহার হয় না। এই তেলের রান্না খাবার অত্যন্ত সুস্বাদু এবং অল্প তেলে তুলনামূলক বেশী রান্না করা যায়। বাজারে প্রচলিত অনেক ভোজ্য তেলের(সায়াবিন, পাম)চাইতে দাম বেশী একটু বেশী হলেও রাইস ব্রান অয়েল এখন পর্যন্ত ভেজাল মূক্ত।

উপাদান:
চালের কুড়ার তেলে চিনাবাদাম তেলের অনুরূপ উপাদান আছে।
১. ৩৮% monounsaturated,
২. ৩৭% polyunsaturated, এবং
৩. ২৫% saturated fatty acids
(Unsaturated fatty acids আমাদের শরীরের জন্য উপকারী।)
এছাড়াও এতে ৮৮০ কিলো ক্যালরি/১০০ গ্রাম energy, আয়োডিন প্রভৃতি উপাদান আছে।

Rice Bran Oil বা চালের কুড়ার তেল এর উপকারিতা:
১. রাইস ব্রান অয়েল প্রাকৃতিক ভিটামিন ও খনিজ উপাদানে সমৃদ্ধ এবং শতভাগ কোলেস্টেরলমুক্ত।

২. এতে ভিটামিন এ, ডি, ই ও ওমেগা ৩ ফ্যাটি এসিড আছে।

৩. এতে রয়েছে সর্বাধিক পরিমান Oryzanol যা রক্তের ক্ষতিকর LDL কোলেস্টেরলের (মন্দ কোলেস্টেরল) মাত্রা কমিয়ে এবং HDL কোলেস্টেরলের (ভালো কোলেস্টেরল) মাত্রা বাড়িয়ে হৃদরোগের ঝুঁকি প্রতিরোধে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। এ জন্য এই তেলটি জাপানে হার্ট গার্ড অয়েল হিসেবে পরিচিত।

৩. এতে আছে প্রাকৃতিক গুন সম্পন্ন ভিটামিন-ই (Tocopherols এবং tocotrienols)- এ ধরনের অ্যান্টি অক্সিডেন্ট দেহের ফ্রি র‌্যাডিকেল দ্বারা ক্ষতি প্রতিরোধ করে এবং ক্যান্সার প্রতিরোধে সহায়তা করে।

৪. এটি রক্ত সঞ্চালন বৃদ্ধি ও স্বাভাবিক করে ফলে রক্তচাপ কমায় ও ডায়াবেটিক নিয়ন্ত্রনে রাখতে সাহায্য করে।

৫. এতে এমন কিছু প্রাকৃতিক উপাদান আছে যা চর্মরোগ প্রতিরোধ করে এবং চর্মের মসৃনতা ও উজ্জ্বলতা বাড়ায়।

৬. এতে রয়েছে Phytosterols যা কোলেস্টেরল মাত্রা কমাতে সাহায্য করে।

৭. এটি Post Menopausal Women (৪৫-৫০ বছর বয়স্ক মহিলা, যাদের মাসিক বন্ধ হয়ে গেছে ) দের ‘hot flashes’ এবং Menopause এর অন্যান্য উপসর্গ থেকে পরিত্রানে সাহায্য করে। গবেষণায় দেখা গেছে ৯০% মহিলারা Rice Bran Oil সাপ্লিমেন্ট নেওয়ার চার থেকে ছয় সপ্তাহের মধ্যে ‘hot flashes’ থেকে কিছুটা পরিত্রাণ পেয়েছেন।

ধান উৎপাদনকারী দেশ হিসেবে বিশ্বে বাংলাদেশের অবস্থান অন্যতম। সে জন্য দেশে যে পরিমাণ ধানের কুঁড়া উৎপাদিত হয়, তার সঠিক ব্যবহার করতে পারলে ভবিষ্যতে বিদেশ থেকে হয়তো আর ভোজ্যতেল আমদানি করতে হবে না। এতে দেশীয় শিল্প বিকাশের পাশাপাশি বিপুল পরিমাণ বৈদেশিক মুদ্রাও সাশ্রয় হবে। ২২ নভেম্বর’২০১০ থেকে
বাংলাদেশ থেকে ভারতে ক্রুড রাইস ব্রান ওয়েল (ধানের কুঁড়ার তেল) রপ্তানি হচ্ছে। এ তেল রিফাইন করে ভোজ্যতেল তৈরি হয়। সুতরাং ক্রুড রাইস ব্রান ওয়েল রপ্তানি করে প্রচুর বৈদেশিক মুদ্রা আয় করাও সম্ভব।

পরিশেষে বলা যায়, Rice Bran Oil আমাদের দেশে বিশুদ্ধ ও স্বাস্থ্যকর ভোজ্য তেলের চাহিদা পূরন করে হার্ট এট্যাকের ঝুকি কমাতে, ডায়াবেটিক নিয়ন্ত্রনে রাখতে, ক্যান্সার প্রতিরোধ করতে যেমন সহায়তা করতে পারে তেমনি বিদেশে ক্রুড রাইস ব্রান ওয়েল রপ্তানি করে প্রচুর বৈদেশিক মুদ্রা আয় করতেও সাহায্য করতে পারে।

ঔষধি গাছ সম্পর্কে জানতে এখানে ক্লিক করুন ।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

namaj.info bd news update 24 short film bd _Add
.
*** নিজে সুস্থ থাকি , অন্যকে সুস্থ রাখি । সাস্থ্য ও চিকিৎসা বিষয়ে যে কোন প্রশ্ন থাকলে জানাতে পারেন ! হোমিওপ্যাথি বিডি.কম একটি ফ্রী হোমিওপ্যাথি চিকিৎসার জন্য তৈরী বাংলা ব্লগ সাইট । ***